স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধ’র্ষণ, যুবক আটক

স্কুলছাত্রীকে তুলে নিয়ে ধ’র্ষণ, যুবক আটক

সাতক্ষীরার শ্যামনগরে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে স্কুলছাত্রীকে ধ’র্ষণের অভিযোগে রাকেশ বাইন ( ২২) নামে এক বখাটে তরুণকে আটক করেছে শ্যামনগর থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (১২ এপ্রিল) সন্ধায় স্থানীয়দের সহায়তায় শ্যামনগর থানার উপ-পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান উপজেলা পরিষদের সামনে থেকে তাকে আটক করে।

শ্যামনগর উপজেলার একটি স্কুলের ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থী ধ’র্ষণের শিকার ছাত্রী।

অভিযুক্ত ধর্ষক রাকেশ বাইন শ্যামনগর উপজেলার বুড়িগোয়ালিনি গ্রামের স্বপন বাইনের ছেলে।

ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর মা এ ঘটনায় বাদী হয়ে আটক রাকেশ ও তার সহযোগী রাহুল চৌকিদারের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার রাতে শ্যামনগর থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই স্কুলছাত্রী জানান, চাচাত বোনের সাথে গত রবিবার বিকালে সে বুড়িগোয়ালিনি ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন নিকটাত্মীয়ের বাড়িতে পূজা দেখতে যায়। সেখান থেকে ১০টার দিকে বাড়িতে ফেরার পথে বুড়িগোয়ালিনি রাধা কৃষ্ণ মন্দিরের সামনের সড়কে পৌঁছালে পূজার পূর্ব পরিচিত এক যুবকের সঙ্গে তাদের দেখা হয়। রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে ওই যুবকের সঙ্গে কথা বলার এক পর্যায়ে স্থানীয় দুই বখাটে রাহুল চৌকিদার ও রাকেশ বাইন সেখানে হাজির হয়ে গালিগালাজ করে ওই যুবককে তাড়িয়ে দেয়। এ সময় ভুক্তোভোগী শিক্ষার্থী ও তার চাচাত বোন পূজা মিস্ত্রি বাড়ি যাওয়ার সময় তাদের পথ আটকিয়ে বখাটে ওই দুই যুবক মিলে তাদের টেনে হিঁচড়ে পার্শ্ববর্তী রাকেশের বাড়িতে নিয়ে যায়। এক পর্যায়ে পূজা রাহুলের হাতে কামড় দিয়ে পালিয়ে গেলেও নিকটস্থ বাগানে নিয়ে রাকেশ ভুক্তভোগী কিশোরীকে ধর্ষণ করে। এ সময় রাহুল নিজ ব্যবহৃত মুঠোফোন দিয়ে তাকে ধ’র্ষণের পুরো চিত্র ভিডিও করে এবং কাউকে কিছু জানালে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয়।

read more ফরিদপুরে গ্রাহকদের ১০ কোটি টাকার আত্মসাৎ এর বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

ওই ছাত্রীর মা জানান, ইতোপূর্বে আমার মেয়ে স্কুল ও কোচিং এ যাওয়া আসার পথে রাস্তাঘাটে ওই দুই বখাটে তার মেয়েকে বাজে কথা শুনাতো বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিত। এ ঘটনার পরে মেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়ায় জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সকালে ঘটনা খুলে বলে।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী স্কুলশিক্ষার্থীর পরিবার মঙ্গলবার রাতে শ্যামনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করলে শ্যামনগর থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১ নম্বর আসামিকে আটক করেছে।

শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ কাজী ওয়াহিদ মুর্শেদ জানান , স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে তার মা লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগটি মামলা হিসেবে গণ্য করা হয়েছে। মামলা নং-২১। ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ ভুক্তভোগী ছাত্রীর সঙ্গে কথা বলে প্রাথমিকভাবে তাকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এজাহার নামীয় ১ নম্বর আসামিকে আটক করা হয়েছে পরবর্তী আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.




©2020 SomoyerKhbor All rights reserved ®

Design BY NewsTheme