উদ্যোক্তা হতে কি কি প্রয়োজন.?

উদ্যোক্তা হতে কি কি প্রয়োজন.?

উদ্যোক্তা হতে কি কি প্রয়োজন?

📖কিভাবে ব্যবসা শুরু করবেন📖

উদ্যোক্তা হতে চাওয়ার ক্ষেত্রে প্রথমত তুমুল আগ্রহ থাকা প্রয়োজন। পড়াশোনা শেষ করে শুরু করবো এমন চিন্তা থাকলে মুশকিল। কারণ, একজন উদ্যোক্তা পড়াশোনাকালীন সময় থেকেই উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ শুরু করে দিতে পারেন। তবে যে বিষয়গুলো অবশ্যই গুরুত্বপূর্ন ঃ

পরিপূর্ণ ভাবে একজন উদ্যোক্তা হয়ে ওঠা বেশ কঠিন!
কোন উদ্যোক্তা যদি নির্দিষ্ট একটা সময় নিয়ে বিজনেসের কাজ করার ইচ্ছে নিয়ে এই পেশায় আসেন (সকাল থেকে বিকেল) তাহলে উদ্যোক্তা হওয়ার চিন্তা প্রথমেই আপনাকে বাদ দেয়া উচিত। একজন উদ্যোক্তাকে অনেক অনেক বেশি সময় দিতে হয়।
একজন উদ্যোক্তাকে প্রথমে সকল ধরনের কাজই করতে হয়। ধরা যাক কোনো উদ্যোক্তা যদি হয় ই-কমার্সে তাহলে দেখা যাবে অর্ডার নেয়া থেকে গ্রাহকের হাতে পণ্য পৌঁছানো পর্যন্ত সব কাজই উদ্যোক্তাকে করতে হয়ে থাকে। সেই হিসেবে নিজেবে তৈরি করতে হবে।
কোন বিষয়ের উদ্যোগ হবে, সেটার পদ্ধতি কি হবে, ব্যবসায়িক কি কি সমস্যা হতে পারে তার সবগুলো বিষয় স্বচ্ছ ধারনা থাকতে হবে।

উদ্যোক্তাদের মেন্টরশিপ খুবই জরুরি। মেন্টর খুঁজে তার পরামর্শ নিয়মিত নেয়ার বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।
হুট করেই বা শুরু করই সফলতা নাও আসতে পারে। তাই দীর্ঘ সময় লেগে থাকার মানসিকতা থাকতে হবে।
উদ্যোগের শুরুতেই প্রয়োজনীয় কাগজাদি ঠিক করে ফেলতে হবে। যেমনঃ ট্রেড লাইসেন্স, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ইত্যাদি। যদি পার্টনারশিপ হয় তাহলে চুক্তি করে ফেলাও জরুরি।

বিভিন্ন ধরনের উদ্যোক্তা বিষয়ক গ্রুপে যুক্ত হওয়ার পাশাপাশি নেটওয়ার্কিং বাড়াতে উদ্যোক্তা সংক্রান্ত আয়োজনগুলোতে যুক্ত থাকা জরুরি।

উদ্যোক্তাদের সব সময় সময়ের সাথে, প্রযুক্তির সাথে হালনাগাদ থাকাটা জরুরি।

উদ্যোক্তা বিষয়ক বই পড়া যেতে পারে। সফল উদ্যেক্তাদের সম্পর্কে জানাশোনাটা জরুরি।

 

✅আমরা অনেকেই চাই বিজনেস করতে।কিন্তু আমরা এটাও জানি যে চাইলেই সব পাওয়া যায় না।অনেকে বিজনেস করতে তো চাই,কিন্তু বিজনেস আইডিয়া খুঁজে পাই না,বিজনেস আইডিয়া খুঁজে পাই তো পুঁজি থাকে না,পুঁজি থাকে তো কিভাবে শুরু করব বুঝে উঠতে পারি না।এরকম অনেক ধাপই বিজনেস শুরু করার আগে আমাদেরকে মুখোমুখি হতে হয়।আবার কেউ কেউ বিজনেস শুরু করলেও সফলতা পায় না।
সফল উদ্যোক্তা হতে হলে ব্যবসার প্রথমে কি কি করা উচিত আমাদের??

✅জ্বী।মাঠে নামার আগে অবশ্যই আপনাকে রিসার্চ করতে হবে।জানতে হবে,পড়তে হবে।

✅তো স্বল্প পুঁজিতে সফল ব্যবাসায়ী হতে হলে, অবশ্যই আপনাকে এমন পণ্য কিংবা সেবা নির্বাচন করতে হবে,যা একটি সমস্যার সমাধান হবে এবং মার্কেটের চাহিদা পূরণ করবে অথবা মার্কেট কি চায়,সেইটা অফার করবে।

✅মার্কেট রিসার্চ করতে গেলে কিছু প্রশ্ন মাথায় রেখে আপনার এই কাজটি করা উচিত।সেগুলো হল-

★ আপনি যেই পণ্য বা সেবা মার্কেটে দিতে চাচ্ছেন,তার প্র‍য়োজন মার্কেটে আছে কি না।

★ আপনার পণ্য বা সেবাটি কাদের প্রয়োজন??

★উদ্যোক্তা হিসেবে বাজারে কি আর কেউ আছে যে আপনার চিন্তার একই পণ্য বা সেবা দিচ্ছেন??

★ আপনার চিন্তাধারার পণ্য নিয়ে বাজারে প্রতিযোগিতা কেমন ।

★ এমন পরিস্থিতিতে আপনি বা আপনার যেই পণ্য বা সেবা বাজারে আনতে চাচ্ছেন, তা বাজারে কি ভাবে ফিট করবেন।

মার্কেটে ঝাঁপ দেওয়ার আগে এই প্রশ্নগুলোর উত্তর খুঁজতে ভুলবেন না। ভুলতে পারেন, যদি সফল হতে না চান।

মাথায় রাখবেন এই পথে শ্রম এবং ধৈর্য এই দুইয়ের কোনো বিকল্প নেই।সফলতার রাস্তায় কোনো শর্টকাট নেই।

সর্বোপরি,

নিজেকে উদ্যোক্তা অথবা উদ্যোগকে নিয়ে সবসময় চিন্তা ভাবনাটা যেমন জরুরি তেমনি সেটি নিয়ে গর্ববোধ করাটাও জরুরি। যদি লেগে থাকেন সফলতা আসবেই আসবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




©2020 SomoyerKhbor All rights reserved ®

Design BY NewsTheme